রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ

স্থাপিত: ১৯৫৮ / জাতীয়করণ: ১৯৮২

রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ

স্থাপিত: ১৯৫৮ / জাতীয়করণ: ১৯৮২

রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ

স্থাপিত: ১৯৫৮ / জাতীয়করণ: ১৯৮২

অধ্যক্ষের বাণী

বিভাগীয় শহর ও শিক্ষানগরী রাজশাহীর প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত উত্তরবঙ্গের অন্যতম প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ। এ প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের মেধা ও সৃজনশীলতা বিকাশের মাধ্যমে বিশ্বমানের জ্ঞানসম্পন্ন, দেশপ্রেমিক ও মনুষ্যত্ববোধে উজ্জীবিত একজন পরিপূর্ণ মানুষ গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ্য। গুণগত শিক্ষার মাধ্যমে কেবল মেধার মানবিকরীকরণ সম্ভব এই সত্য রূপায়ণে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

উপাধ্যক্ষ পদটি বর্তমানে শূন্য আাছে।

উপাধ্যক্ষ পদ টি শূন্য

রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ

তথাকথিত পাকিস্তান রাষ্ট্রের স্বাধীনতালাভের কাল থেকে এ অঞ্চলের শিক্ষালাভের ক্ষেত্রে পর্বতপ্রমাণ বাধার সম্মুখীন হয়েছে জনসংখ্যা অনুপাতে পর্যাপ্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভাবের কারণেই। একটি ব্যাপক সংখ্যক শিক্ষিত হিন্দু ব্যক্তিত্বের তদানীমত্মন পূর্বপাকিস্তান থেকে ভারতে অভিবাসন বিষয়টিকে আরো স্পষ্টতর করে তুলেছিল। ফলশ্রুতিতে তরুণ সম্প্রদায় প্রচন্ড আর্থিক সংকট এবং পঙ্গু অর্থনীতির কারণে একটি দুর্দশাগ্রসত্ম অবস্থার মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল এবং ভাবতে বাধ্য হয়েছিল যে, তাদের উচ্চ শিক্ষালাভের আশা-আকাঙ্ক্ষা অকালেই ঝরে যাবে এবং তাদের উজ্জ্বল ভবিষ্যতকে উত্তরণের উচ্চতর ধাপে প্রতিষ্ঠার প্রয়াস আগামী সকল সময়ের জন্য চিরবিষণ্ণই থেকে যাবে। এ সকল বাধাবিপত্তির মাঝেও তাদেরকে চাকুরীর খোঁজে এদিক সেদিক ঘুরে বেড়াতে হবে এবং কেউ কেউ ভাগ্যের সুপরিবর্তনে কোন চাকুরীর খোঁজ না পেয়ে প্রত্যমত্ম গ্রামের নিভৃত কোণে হতাশার ঝিমুনিতে দিনাতিপাত করবে।

এমতাবস্থার মধ্যে একমাত্র রাজশাহী সরকারি কলেজ ও একটি বেসরকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আদিনা ফজলুল হক কলেজ রাজশাহী জেলার অতি স্বল্পসংখ্যক তরুণদের শিক্ষালাভের
খু-উ-ব সীমিত পরিসর ও সুযোগ সুবিধা যোগাতে পারত। কিছুসংখ্যক মুখ সোনার চামচ নিয়ে জন্ম নেওয়া তরুণ শিক্ষার এ সুবিধাটুকু গ্রহণ করতে পারত অথচ একটি সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠী যারা তাদের জীবিকার জন্য কৃষির উপর নির্ভরশীল এবং দারিদ্র্যপীড়িত মধ্যবিত্ত শ্রেণী থেকে আগত তাদের এমন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষাগ্রহণের সুযোগ কমই ছিল বলা চলে।

কলেজের প্রতীক পরিচিতি

রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজের প্রতীকে রয়েছে চারটি বৃত্ত। ভেতর থেকে বাইরে বৃত্তগুলো যথাক্রমে সত্য, সুন্দর, পবিত্রতা ও বিশ্বজনীনতার প্রতীক। একটি উন্মুক্ত গ্রন্থ জ্ঞানের প্রতীক। একটি ফিতার বন্ধন বন্ধুত্ব ও পরমতসহিষ্ণুতার প্রতীক। একটি প্রদীপ শিখা আলোকিত মানুষের প্রতীক।

কলেজের নিয়ম কানুন

শিক্ষা নগরী রাজশাহীর কেন্দ্র স্থলে অবস্থিত রাজশাহী সরকারী সিটি কলেজ, রাজশাহী তথা উত্তর বঙ্গের অন্যতম বিদ্যাপীঠ। ১৯৫৮ সালের জুলাই মাসে রাজশাহী মহানগরীর রাজারহাতা এলাকায় প্রতিষ্ঠিত এ কলেজটি মাত্র ১৪০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে যাত্রা শুরু করে।

ছাত্র/ছাত্রীদের জন্য অবশ্য পালনীয়

শৃঙ্খলা ও নিয়মানুবর্তিতা : রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ রাজশাহী শহরের একটি অন্যতম কলেজ। সমেত্মাষজনক ফলাফলের লক্ষ্যে কলেজে যথেষ্ট শিক্ষার অনুকূল পরিবেশ বিরাজমান। অত্র কলেজের সার্বিক পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখার নিমিত্তে ছাত্র-ছাত্রীদের কিছু নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে চলা

কলেজের ইউনিফরম

ছাত্রদের পোশাকের ধরণ: গাঢ় কপি রং-এর ফুলপ্যান্ট, সাদা শার্ট, কলেজের মনোগ্রাম সম্বলিত দুই কাঁধে দুইটি ব্যাজ, কালো সু।

ছাত্রীদের পোশাকের ধরণ : সাদা সালোয়ার, সাধা শার্ট, কফি রং-এর টপস, দুই কাঁধে কলেজের 

কলেজের ছুটির তালিকা- ২০২০

ছুটির উপলক্ষ্য ছুটির তারিক ও দিন
 শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা ২৯ জানুয়ারি,বুধবার
* মাঘী পূর্ণিমা ৮ ফেব্রুয়ারি,শনিবার
 শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ২১ ফেব্রুয়ারি,শুক্রবার
শুভ দোলযাত্রা ৯ মার্চ, সোমবার
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস ১৭ মার্চ, মঙ্গলবার
* শব-ই- মেরাজ ২৩ মার্চ, সোমবার
স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস ২৬ মার্চ, বৃহস্পতিবার
* শব-ই- বরাত ৯ এপ্রিল,বৃহস্পতিবার
পূণ্য শুক্রবার ১০ এপ্রিল, শুক্রবার
বৈসাবি উৎসব ও ইস্টার সানডে

১২ এপ্রিল, রবিবার ও

১৫ এপ্রিল, বুধবার

বাংলা নববর্ষ ১৪ এপ্রিল, মঙ্গলবার
মে দিবস ১ মে, শুক্রবার
* বুদ্ধ পূর্ণিমা (বৈশাখি পূর্ণিমা) ৬ মে, বুধবার
*পবিত্র রমজান, * শব-ই-কদর, জুমাতুল বিদ্যা * ঈদ-উল- ফিতর ও গ্রীষ্মকালীন অবকাশ ১৪ মে, বৃহস্পতিবার থেকে ১৮ জুন, বৃহস্পতিবার
*পবিত্র ঈদ-উল-আযহা

২৭ জুলাই, সোম থেকে

৪ আগস্ট, মঙ্গলবার

শুভ জন্মাষ্টমী ১১ আগস্ট, মঙ্গলবার
জাতীয় শোক দিবস ১৫ আগস্ট, শনিবার
* হিজরি নববর্ষ ২১ আগষ্ট, শুক্রবার
* আশুরা ৩০ আগস্ট, রবিবার
প্রবারণা পূর্ণিমা ১অক্টোবর,বৃহস্পতিবার
আখেরি চাহার সোম্বা ১৪ অক্টোবর, বুধবার
শ্রী শ্রী  দূর্গা  পূজা, শ্রী শ্রী লক্ষ্মী পূজা ও * ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সা:) ২২-২৩ অক্টোবর, বৃহস্পতিবার – শুক্রবার
শ্রী শ্রী কালী/শ্যামা পূজা ১৪ নভেম্বর, শনিবার
* ফাতেহা-ই-ইয়াজদাহম ২৭ নভেম্বর, শুক্রবার
বিজয় দিবস, যিশু খ্রিস্টের জন্মদিন ও শীতকালীন অবকাশ ১৬-৩১ ডিসেম্বর, বুধবার- বৃহস্পতিবার
প্রতিষ্ঠান প্রধানের সংরক্ষিত ছুটি ০৩ দিন

(*চিহ্নিত ছুটির তারিখ চাঁদ দেখার উপর নির্ভরশীল)